শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪

শচীনের বাড়ি ঘেরাও,  ‘ভারতরত্ন’ কেড়ে নেওয়ার দাবি

ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের বাড়ি ঘেরাও করে তার ভারতরত্ন খেতাব কেড়ে নেওয়ার দাবি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার অনলাইন গেমিং অ্যাপের বাণিজ্যিক দূত হওয়ায় এবং বিজ্ঞাপনে অংশ নেওয়ায় মহারাষ্ট্রের অচলপুর থেকে নির্বাচিত বিধানসভার সদস্য ওমপ্রকাশ বাবারাও ওরফে বাচ্চু কাডু ও তাঁর সমর্থকেরা এ দাবি করেন। 

পেটিএম ফার্স্ট গেমস নামের একটি ফ্যান্টাসি গেমিং অ্যাপের বাণিজ্যিক দূত হিসেবে ২০২০ সালে চুক্তিবদ্ধ হন শচীন। পরবর্তীতে এটির বিজ্ঞাপন ও প্রচারেও অংশ নেন তিনি। টাকা জমা দিয়ে খেলতে হয় বলে এটিকে জুয়া সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট দাবি করেছেন বাচ্চু কাডু ও তাঁর সমর্থকেরা। 

ফ্যান্টাসি গেমিংয়ের আড়ালে আসলে জুয়া খেলা হচ্ছে দাবি তাদের। এমন এক অ্যাপের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে প্রচার চালিয়ে তরুণদের বিপথে যেতে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে শচীনের বিরুদ্ধে। দ্রুত এই অ্যাপের সঙ্গে চুক্তি বাতিল ও তাদের প্রচার না করার জন্য শচীনের প্রতি আহ্বান করেন বিক্ষোভকারীরা। 

এর আগে নির্দলীয় বিধায়ক বাচ্চু কাডু টেন্ডুলকারকে এ সংক্রান্ত একটি নোটিশও পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু শচীন সেটার কোনো উত্তর না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার  সমর্থকদের সঙ্গে ব্যানার,ফেস্টুন নিয়ে শচীনের বাড়ি ঘেরাও করেন বিক্ষোভ করেন তিনি। 

এ সময় সংবাদমাধ্যমগুলোকে বাচ্চু বলেন, ‘আমরা তাঁকে (শচীনকে) একটি চিঠি পাঠিয়েছিলাম। তিনি কোনো উত্তর দেননি। যদি ৩০০ কোটি আয়ের জন্য এ ধরনের প্রচারে অংশ নিয়ে থাকেন, তাহলে তাঁর উচিত অবিলম্বে ভারতরত্ন ফেরত দেওয়া।’  

এরপর বান্দ্রা পুলিশ শচীনের বাড়ির সামনে থেকে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয়। এ সময়  সাবেক এই মন্ত্রী ও কমপক্ষে ১২ জন সমর্থককে আটক বান্দ্রা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। মানব জমিন

আরো পড়ুন ...