রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

ভারতে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদপিষ্ট হয়ে নিহত ১০৭

ভারতের উত্তর প্রদেশের হাথরস জেলায় একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদপিষ্ট হয়ে অন্তত ১০৭ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরো প্রায় ১৫০ জনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) উত্তর প্রদেশের হাথরস জেলার একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রাজ্যের রাজধানী লক্ষ্ণৌ থেকে প্রায় সাড়ে তিনশ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ওই অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ভোলে বাবা নামের এক ধর্মীয় নেতার সাথে তার অনুসারীরা অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের হওয়ার সময় হুড়োহুড়িতে অনেকে পদদলিত হয়।

উত্তর প্রদেশের সিনিয়র মেডিক্যাল অফিসার রাম মোহন তিওয়ারি মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত ১০৭টি লাশ উদ্ধার করেছি। লাশের সংখ্যা বাড়ছে।

হাথরসের পুলিশ জানিয়েছে, ভিড়ের কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। তবে ওই অনুষ্ঠানে ঠিক কত মানুষ জমায়েত হয়েছিল, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারেনি তারা।

পুলিশ আরো জানায়, আহত ১৫০ জনেরও বেশি লোককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

জেলার প্রধান মেডিক্যাল কর্মকর্তা উমেশ কুমার ত্রিপাঠি সাংবাদিকদের বলেন, ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদদলিত হয়ে অনেকেই আহত হন। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, নয়া দিল্লি থেকে প্রায় ১৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে হাথরসের একটি গ্রামে হিন্দু দেবতা শিব পুজোর জন্য জড়ো হয়েছিল সবাই।এর আগে, ২০১৬ সালে হিন্দু নববর্ষ উপলক্ষে একটি মন্দিরে আতশবাজি প্রদর্শনের কারণে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে কমপক্ষে ১১২ জন মারা যান। তারও আগে ২০১৩ সালে ভারতের মধ্য প্রদেশের একটি মন্দিরের কাছের সেতুতে পদপিষ্ট হয়ে আরো ১১৫ জনের মৃত্যু হয়।

সূত্র : আলজাজিরা ও হিন্দুস্তান টাইমস

আরো পড়ুন ...