শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪

ঘূর্ণিঝড় রিমালের ধ্বংসযজ্ঞ হেলিকপ্টার থেকে দেখলেন প্রধানমন্ত্রী

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ও বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় রিমালের ধ্বংসযজ্ঞ হেলিকপ্টার থেকে দেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে পটুয়াখালী যাওয়ার সময় হেলিকপ্টার থেকে এসব এলাকার পরিস্থিতি দেখেন শেখ হাসিনা। এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি ধীরগতিতে অল্প উচ্চতা দিয়ে চক্কর দেয়।

ঢাকা থেকে প্রায় দেড় ঘণ্টার যাত্রা শেষে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার খেপুপাড়া সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়সংলগ্ন হেলিপ্যাডে অবতরণ করে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জনগণ ও দেশের উন্নয়নে সর্বদা আন্তরিকভাবে নিবেদিত।
তিনি বলেন, ‘আমরা আপনাদের পাশে আছি, ঘূর্ণিঝড় রিমেলের আঘাতে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের ক্ষতি পুষিয়ে দেওয়ার জন্য যা যা করা দরকার সব ধরনের সহযোগিতা আমরা করবো।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ জেলা প্রশাসনের আয়োজিত কলাপাড়ায় সরকারি মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।
দেশের দক্ষিণাঞ্চলের সার্বিক উন্নয়নের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই এইসব উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘অনেক লোকই তো ক্ষমতায় ছিল, কিন্তু তারা এই অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য কিছুই করেনি।’   
সরকার প্রধান বলেন, আমাদের দেশে ঘুর্ণিঝড়, বন্যা, জলোচ্ছাস প্রকৃতির নিয়মেই আসে। সেখানে মানুষের জীবন মান বাঁচানোই সবচেয়ে বড় কথা। জিনিষ গেলে পাওয়া যায়, কিন্তু জীবনতো আর পাওয়া যায়না।

পরে বরিশাল বিভাগের বিভাগীয় পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় দিনব্যাপী কর্মসূচি শেষে বেলা তিনটায় ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা শেখ হাসিনার।

আরো পড়ুন ...