Home Author
Author

uadmin

ঢাকা, ২ ডিসেম্বর ২০২২: খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, জিনিসপত্রের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিসহ দেশে নানমুখী সংকট চলছে। বহু আলেম জেলখানায়। জনগণের জান মালের নিরাপত্তা নেই। এসব সংকট উত্তরণে দ্বীন- ইসলাম প্রতিষ্ঠা করতে হবে। ইসলামই হচ্ছে শান্তির একমাত্র পথ। দ্বীন প্রতিষ্ঠার জন্য হিম্মতের সহিত ময়দানে কাজ করতে হবে। খেলাফত মজলিসের ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
আজ ২ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ৯টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা আজীজুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক সংগঠনের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেন, দেশ আজ গভীর সংকটের মুখোমুখি। আওয়ামীলীগ তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন করে ক্ষমতায় গিয়ে নিজেরাই তা বাতিল করেছে। এখন জনগণ ভোটের অধিকারটুকুও হারিয়ে ফেলেছে। এমতাবস্থায় জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে নির্বাচনকালীন দল নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। আর খেলাফত মজলিস ৩৩ বছর ধরে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে কাজ করে যাচ্ছে। খেলাফত রাষ্ট্রব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার গুরুত্ব জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে নিরলস কাজ করছে এই সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক তাওহিদুল ইসলাম তুহিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের নায়েবে আমীর মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন যুগ্মমহাসচিব ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল, অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মোঃ মিজানুর রহমান, প্রশিক্ষণ ও প্রকাশনা সম্পাদক অধ্যাপক কাজী মিনহাজুল আলম, ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সহ-সভাপতি মো: জহিরুল ইসলাম, মাওলানা নুরুল হক, জিল্লুর রহমান, শ্রমিক মজলিসের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম, ময়মনসিংহ মহানগরী সভাপতি এডভোকেট রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের নায়েবে আমীর অধ্যাপক আবদুল্লাহ ফরিদ, শ্রমিক মজলিসের সভাপতি হাজী নূর হোসেন, খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহ-সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল হোসাইন, হুমায়ুন কবির আজাদ, কাজী আরিফুর রহমান, মুফতি সাইফুল হক, মাওলানা ফারুক আহমদ ভূঁঞা, ছাত্র মজলিসের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ মনির হোসাইন, মাওলানা সরদার নেয়ামত উল্লাহ, মোঃ গিয়াস উদ্দিন, সেলিম হোসাইন, ইসলামী ছাত্র মজলিস ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সভাপতি নূর মুহাম্মদ প্রমুখ।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী বলেন, সমস্ত অশান্তির মূল কারণ হচ্ছে আল্লাহর বিধান পরিপূর্ণভাবে না মানা। চারত্রবান মানুষের অভাবের কারণে চারিদিকে নানা সংকট। মানুষের চরিত্র সংশোধনের জন্য যে শিক্ষা দরকার আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় তা নেই। বরং ইসলাম তথা নীতি নৈতিকতার যেসব বিষয় সিলেবাসে ছিলো তাও বাদ দেয়া হচ্ছে।
আলোচনা সভা শেষে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে শুরু হয়ে পল্টন মোড়, দৈনিক বাংলা মোড় হয়ে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে এসে শেষ হয়।
আলোচনা সভা ও র‌্যালীতে হামদ-নাত পরিবশন করেন দাবানল শিল্পীগোষ্ঠীর সদস্যবৃন্দ।
0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি- ডিআরইউ নির্বাচনে সভাপতি পদে মুরসালিন নোমানী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মাইনুল হাসান সোহেল নির্বাচিত হয়েছেন।

বুধবার পেশাদার সাংবাদিকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণ শেষে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার মনজুরুল আহসান বুলবুল।

সহসভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন দীপু সারোয়ার, যুগ্ম সম্পাদক পদে মঈনুল আহসান, অর্থ সম্পাদক পদে সাখাওয়াত হোসেন সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে সাইফুল ইসলাম, দফতর সম্পাদক পদে কাওসার আজম, নারীবিষয়ক সম্পাদক পদে মরিয়ম মনি সেঁজুতি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে কামাল উদ্দিন সুমন, তথ্যপ্রযুক্তি সম্পাদক পদে তোফাজ্জল হোসেন রুবেল, ক্রীড়া সম্পাদক পদে মো: মাহবুবুর রহমান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মিজান চৌধুরী, কল্যাণ সম্পাদক পদে তানভীর আহমেদ নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া অ্যাপায়ন সম্পাদক পদে মোহাম্মদ নঈমুদ্দীন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

কার্যনিবাহী সদস্য হিসেবে মনিরুল ইসলাম মিল্লাত, ইসমাঈল হোসাইন রাসেল, মহসিন বেপারী, মোজাম্মেল হক তুহিন, কিরণ সেখ, এস এম মোস্তাফিজুর রহমান সুমন, মো: ইব্রাহীম আলী (আলী ইব্রাহীম) নির্বাচিত হয়েছেন।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: চীনের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াং জেমিন আর নেই। বুধবার সাংহাইয়ের স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় মারা গেছেন তিনি। এ তথ্য দেয়া হয়েছে রাষ্ট্রীয় মিডিয়ায়। বলা হয়েছে, তার বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর। তিয়ানানমেন স্কোয়ার বিক্ষোভের পর তিনি ক্ষমতায় এসেছিলেন। তার সময়কালে চীন ব্যাপকভাবে উন্মুক্ত করা হয়। ফলে দেশটি দ্রুতগতিতে প্রবৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যায়। তিয়ানানমেন বিক্ষোভের পর সবচেয়ে মারাত্মক বিক্ষোভ যখন হচ্ছে চীনে, তখনই তিনি মারা গেলেন। চাইনিজ কমিউনিস্ট পার্টি বিবৃতিতে বলেছে, জিয়াং জেমিন মারা গেছেন লিউকেমিয়া এবং নানা রকম অঙ্গ অকেজো হয়ে যাওয়ায়।

গ্লোবাল টাইমস, সিনহুয়া বার্তা সংস্থা সহ রাষ্ট্রীয় মিডিয়াগুলো তার সম্মানে তাদের ওয়েবসাইটকে সাদা-কালোতে উপস্থাপন করেছে। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সিসিটিভি প্রয়াত এই নেতার ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেছে।

এতে বলা হয়েছে, ১৯৮৯ সালের বসন্ত ও গ্রীষ্মে চীনের রাজনৈতিক পরিস্থিতি টালমাটাল হয়ে উঠেছিল। সে সময় কমরেড জিয়াং জেমিন অসন্তোষের বিরুদ্ধে পার্টির সেন্ট্রাল কমিটিতে যথাযথ সিদ্ধান্ত দিয়ে তা বাস্তবায়নে ভূমিকা রেখেছিলেন। তিনি সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার পক্ষে ছিলেন এবং জনগণের মৌলিক স্বার্থের একজন রক্ষক ছিলেন। সূত্র: অনলাইন বিবিসি

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: নতুন গাড়ি ফিরিয়ে দিলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম। এমনকি নিজেদের সুবিধার জন্য সরকারি টাকা ব্যবহার করবেন না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীর জন্য কেনা মার্সিডিজ বেঞ্জ এস৬০০ লিমুজিন গাড়ি ব্যবহার করতে অস্বীকার করেছেন তিনি। এর পরিবর্তে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে থাকা যেকোনো একটি গাড়ি আনোয়ার ইব্রাহিম ব্যবহার করবেন বলে জানিয়েছেন।

রোববার এক ফেসবুক পোস্টে আনোয়ার ইব্রাহিম জানিয়েছেন, (শনিবার) আমি একটি মার্সিডিজ এস৬০০ গাড়ি ব্যবহার করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছি, যেটি আমি অফিসে আসার আগে কেনা হয়েছে।

মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি চাই না আমার ওপর নতুন কোনো খরচ হোক। শনিবার রাতে সেলাঙ্গোর একটি মসজিদে নামাজের পর একই ধরনের মন্তব্য করেন তিনি।

আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন, তার ব্যবহারের জন্য কোনো নতুন সরকারি গাড়ি কেনা হবে না এবং তার অফিস কোনো নতুন অপ্রয়োজনীয় আসবাবপত্র কিনবে না। পাবলিক ফান্ডের অপচয়ের বিরুদ্ধে এটি একটি নতুন সংস্কৃতির অংশ; যা সবার অনুশীলন করা উচিত।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, শর্ত হলো প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে নতুন কোনো কেনাকাটা করা যাবে না।

সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন, ১০০, ১০০০ বা ১০,০০০ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত- আপনি কতটুকু সংরক্ষণ করতে পারেন তা নিয়ে ভাবুন।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর মালয়েশিয়ার মসনদে বসেছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। তিনি বলেন, আমি বেতন না নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে শুরু করেছিলাম। আরও যেটা গুরুত্বপূর্ণ তা হলো আমাদের যে তহবিল আছে তা নষ্ট না করা।

সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, এটি সব বিভাগের কর্মকর্তাদের মনে রাখার বার্তা যে, বর্তমান পরিস্থিতিতে আমাদের একটি নতুন সংস্কৃতি শুরু করা উচিত। নিজেদের সুবিধার জন্য সরকারি টাকা ব্যবহার করবেন না।

নির্বাচনি প্রচারে ৭৫ বছর বয়সি আনোয়ার ইব্রাহিম ঘোষণা দিয়েছিলেন যে, তিনি সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হলে প্রধানমন্ত্রীর বেতন নেবেন না।

এরই মধ্যে আনোয়ার ইব্রাহিম জানিয়েছেন, তার মন্ত্রিসভার আকার ছোট হবে। যদিও এখনো তিনি মন্ত্রিসভা ঘোষণা করেননি। যুগান্তর

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: নৌ-পরিবহণ শ্রমিকদের ডাকা চলমান ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। সোমবার শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সঙ্গে বৈঠক শেষে নৌযান শ্রমিকরা এ ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) খালেদ মামুন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শ্রম ভবনে আয়োজিত বৈঠক শেষে প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের উপস্থিতিতে নৌ-যান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আশিকুল আলম এ ঘোষণা দেন।

বৈঠকে এ খাতে উদ্ভূত সমস্যা সমাধানে সরকার, মালিক- শ্রমিক নেতারা আলোচনা করেন।

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাহ আলম বলেন, আমরা যে ১০ দফা দাবি উত্থাপন করেছি এর প্রথম ও প্রধান দাবি হচ্ছে শ্রমিকদের ভাতা বা মজুরি। এ ব্যাপারে প্রতিমন্ত্রী যে ঘোষণা দিয়েছেন, যাদের দায়িত্ব দিয়েছেন তারা ঠিকঠাক দায়িত্ব পালন করলে সমস্যা এক মাসের মধ্যেই সমাধান সম্ভব। আশা করছি, আমাদের দাবি দাওয়ার প্রতি সদয় হবেন। ভাতা চলতি মাস থেকেই কার্যকর হবে।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, আমি বলব না মালিক বা শ্রমিক পক্ষ ঝামেলা সৃষ্টি করেছে। তবে ঝামেলা একটা হয়েছে, যেখান থেকে মামলা হয়েছে। মামলা থাকবে। সেটা আমি দেখব। মারামারি কিন্তু ভালো বিষয় নয়। মামলা প্রত্যাহার হবে। যারা আসামি হয়ে জেলহাজতে গিয়েছেন তাদের জামিনেরও ব্যবস্থা করব। কিন্তু এ সমস্যার স্থায়ী একটা বিহিত হওয়া দরকার।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রস্তাবনা প্রণয়ন কমিটি গঠিত হয়েছে। শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তায় অন্তর্বর্তীকালীন টোকেনের ব্যবস্থা করা হবে। এক মাসের মধ্যে গঠিত কমিটি মজুরি নির্ধারণ ও গেজেট আকারে প্রকাশ করবে।

সভায় নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, বিআইডব্লিউটি, শিপিং করপোরেশন, নৌ-যান মালিক ও শ্রমিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। ফলাফল বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে চলতি বছর পরীক্ষার গড় পাসের হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। যা গত ছিল ৯৩ দশমিক ৫৮। এর আগে ছিল ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) বেলা ১২টার পর আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে সাড়ে ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফলাফল হস্তান্তর করেন শিক্ষমন্ত্রী।

এ বছর ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখের বেশি অংশ নেয়। মোট তিন হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে শুধু সাধারণ শিক্ষা বোর্ডগুলোর অধীনে এসএসসি পরীক্ষার্থী প্রায় ১৬ লাখ।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: অবশেষে আনোয়ার ইব্রাহীম মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন। আজ ২৪ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে  রাজা  সুলতার আবদুল্লাহ সুলতান শাহর উপস্থিতিতে রাজ দরবারে মালয়েশিয়ার ১০ম প্রধানমন্ত্রী হিসেব শপথ গ্রহন করেন তিনি।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের চেসাপিক শহরের এক ওয়ালমার্ট স্টোরে বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে। এই হামলায় নিহত হয় ১০ জন এবং আহত হয় আরও বেশ কয়েকজন। বিবিসি

রিপোর্টাদের তথ্য অনুযায়ী, বন্দুকধারী ছিলেন ওই স্টোরেরই ম্যানেজার। তিনি বন্দুক হামলার পর নিজেই নিজেকে গুলিবিদ্ধ করে আত্মহত্যা করেন। চেসাপিক সিটি টুইটারের মাধ্যমে জানিয়েছে, ওয়ালমার্টে গোলাগুলি ও প্রাণহানির ঘটনা নিশ্চিত করেছে চেসাপিক পুলিশ।

কিছু স্থানীয় মিডিয়া রিপোর্টার জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত নিহত ও আহতের সংখ্যা স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। তবে এই ঘটনায় ১০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়নি বলে জানিয়েছেন তারা।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপে ভয়াবহ ভূমিকম্পে কমপক্ষে ৪৪ জন নিহত হয়েছেন। এতে দুমড়ে মুচড়ে গেছে ওই দ্বীপটি। বহু ঘরবাড়ি ধসে গেছে। ফলে হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের জিওলজিক্যাল সার্ভে বলেছে, সোমবার ৫.৬ মাত্রার ভূমিকম্পের উৎস ছিল পশ্চিম জাভার সিয়ানজুর অঞ্চলে ১০ কিলোমিটার গভীরে। সেখান থেকে অধিবাসীদের পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে রাজধানী জাকার্তার দিকে। এসব মানুষ রাস্তা ধরে নিরাপত্তার জন্য শুধু দৌড়াচ্ছিলেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা। ভূমিকম্পে ধ্বংস হয়েছে একটি ইসলামিক বোর্ডিং স্কুল, একটি হাসপাতাল, সরকারি বিভিন্ন স্থাপনাও। সিয়ানজুরের সরকারি কর্মকর্তা হারমান শুহেরম্যান মেট্রো টিভিকে বলেছেন, নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ২০ জন।

আহত হয়েছেন তিন শতাধিক। তিনি বলেন, নিহতের এই সংখ্যা সিয়ানজুরের মাত্র একটি হাসপাতালের। সিয়ানজুরে আছে চারটি হাসপাতাল। ফলে নিহতের সংখ্যা বাড়বে। ওই শহরের স্থানীয় প্রশাসনের মুখপাত্র এডাম বলেন, কয়েক ডজন মানুষ মারা গেছেন। তার ভাষায়, শত শত এমন কি হাজার হাজার বাড়ি ধ্বংস হয়েছে। এখন পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ৪৪। মেট্রো টিভির ফুটেজে দেখা যাচ্ছে সিয়ানজুরের অনেক ভবন মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। উদ্বিগ্ন অধিবাসীরা বাইরে দাঁড়িয়ে শুধু ধ্বংসলীলা দেখছেন। ভূমিকম্প শক্তিশালীভাবে আঘাত করে গ্রেটার জাকার্তা এলাকায়। সেখানকার অনেক হাই-রাইজ ভবনে দোলা দিয়েছে। বহু নাগরিককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। দক্ষিণ জাকার্তার একজন চাকরিজীবী ভিদি প্রিমাধানিয়া বলেন, কম্পন ছিল খুবই শাক্তিশালী। আমাদের অফিস ৯ম তলায়। সহকর্মীদের সঙ্গে আমিও ইমার্জেন্সি সিঁড়ি দিয়ে নিচে নেমে এসেছি।
0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: কাতার বিশ্বকাপের শুরু হয়েছে বেশ চমক জাগানিয়াভাবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মরুভূমির ছাপ, আরব সংস্কৃতি তো ছিলই।

এর সঙ্গে ছিল হলিউড তারকা মরগ্যান ফ্রিম্যানের সঙ্গে শরীরের অর্ধেক অংশ না থাকা একজনের পারফরম্যান্স। তিনি আসলে কে?

এই ব্যক্তির নাম গানিম আল মুফতাহ। কাতারেই জন্ম তার। মায়ের পেটে থাকতে কাউডাল রেগরেসোন সিন্ড্রোম নামের এক জটিল রোগ ধরা পড়ে তার। তাতে শরীরের নিচের অংশ বিকলাঙ্গ হয়ে যায় ধীরে ধীরে। জন্মের আগেই তাকে অপারেশন করে ফেলে দিতে বললেও রাজি হননি মুফতাহর মা।

পরে ডাক্তাররা বলেছিলেন, তার ১৫ বছরের বেশি বাঁচার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। কিন্তু হাল ছাড়েননি মুফতাহ ও তার পরিবার। পেয়েছেন ফলও। গারসিয়া আইসক্রিম নামের একটি নিজস্ব কোম্পানি আছে মুফতাহর। কাতারে এটির আছে ছয়টি শাখা। স্বপ্ন দেখেন একদিন প্যারা অলিম্পিকে খেলার।

২০১৮ সালে টেড এক্স কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের হয়ে একটি বক্তৃতার মাধ্যমে আলোচনায় আসেন মুফতাহ। পরে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক পরিচিতি পান। ইনস্টাগ্রামে এক মিলিয়নেরও বেশি অনুসারী আছে মুফতাহর।

অদম্য এই তরুণ থেমে থাকেননি এখানেই। আরবের সবচেয়ে বড় পাহাড় জাবেল শামসের চূড়ায় উঠেছেন। স্কুলে থাকতে হাতে বুট লাগিয়ে খেলতেন ফুটবল, খেলেছেন আরও অনেক খেলাই। ওই সময়ই স্বপ্ন দেখতেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান পড়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী হবেন। তিনি এখন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন নিজের পছন্দের বিষয়ে।

এবারের বিশ্বকাপের অ্যাম্বেসডরও তিনি। এ নিয়ে এক বিবৃতিতে বলেন, ‘অ্যাম্বাসেডর হিসেবে আমি আমার সক্ষমতা দিয়ে আশা, সামগ্রীকতা, শান্তি ও মানবতার জন্য ঐক্যবদ্ধতার বার্তা ছড়িয়ে দিতে চাই। ’

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail