Home Archives
Monthly Archives

April 2022

ঢাকা: প্রায় তিন বছর ধরে ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেল গতকাল ১৯ এপ্রিল  মারা গেছেন ( ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাইজিউন)।

তার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন তার সহপাঠী ও বন্ধু মোহাম্মদ জাহিদুর রহমান চৌধুরী।

ঢাকার একটি হাসপাতালে ৪০ বছর বয়সে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

দুই হাজার উনিশ সাল থেকেই জটিল এই রোগে ভুগছিলেন মোশাররফ হোসেন রুবেল।

স্ত্রী ও পাঁচ বছর বয়সী এক সন্তান রেখে গেছেন তিনি।

শিক্ষাজীবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগে ছিলেন তিনি।

বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে পাঁচটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন রুবেল।

দুই হাজার বিশ সালে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন তিনি, কিন্তু গত বছর আবারও নতুন করে মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়ে।

গত মাসে বেশ গুরুতর অবস্থায় রুবেলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল, চলতি মাসের ১৫ তারিখ বাসায় ফিরেছিলেন।

ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, আজ মোশাররফ হোসেন রুবেল আবারও অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়, সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শুরুর দিকে যখন মস্তিষ্কের টিউমার ধরা পড়ে তখন সার্জারির জন্য প্রায় দেড় কোটি টাকার প্রয়োজন ছিল বলে তিনি ফ্ল্যাট বিক্রি করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

ঢাকা ও সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা চালিয়ে যেতে হয়েছে বলে সার্জারির আগেই ততদিনে এক কোটি টাকা খরচ হয়ে গিয়েছিল বলে জানান, বন্ধু জাহিদুর রহমান।

বাঁ হাতি স্পিন ও লেট অর্ডারে ব্যাটিং- দুই মিলিয়ে ঢাকার ক্রিকেটে দ্রুতই মানিয়ে নিয়েছিলেন রুবেল। সাকিব আল হাসান-আব্দুল রাজ্জাকদের পূর্বে বাংলাদেশের অন্যতম সেরা স্পিনার মোহাম্মদ রফিকের অবসরের পর জাতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন তিনি।

তার প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচটি ছিল ২০০৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে একটি ওয়ানডে সিরিজে।

কিন্তু কয়েক মাস পরেই কথিত বিদ্রোহী ক্রিকেটারদের লিগ, ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লিগে যোগ দেয়ায় রুবেল বেশিদিন খেলতে পারেননি জাতীয় দলে। তখন আইসিএলগামী ক্রিকেটাররা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে অবসরের চিঠিও দিয়েছিলেন।

২০১৬ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে দলে ডাক পেয়েছিলেন রুবেল
২০১৬ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে দলে ডাক পেয়েছিলেন রুবেল

২০০৯ সালে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর তখন বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরেন মোশাররফ রুবেল।

২০০১-০২ মৌসুম থেকে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলেছেন এই বাহাতি স্পিনার।

রুবেল ঘরোয়া ক্রিকেটে তিন ফরম্যাটেই অবদান রেখেছেন।

২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ফাইনাল ম্যাচে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার পেয়েছিলেন।

যদিও মূলত ছিলেন বাহাতি স্পিনার কিন্তু প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার নামের পাশে রয়েছে ৩৩০৫ রান, সেঞ্চুরিও করেছেন দুটি, ১৬টি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন তিনি বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তিনি ৩৯২টি উইকেট নিয়েছিলেন।

ব্রেইন টিউমার ধরা পড়ার আগে শেষবার ২০১৯ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ খেলেছিলেন মোশাররফ রুবেল।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে কালবৈশাখী ঝড়ে ২১ জন যাত্রীসহ একটি স্পিডবোট ডুবে গেছে। এরমধ্যে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনো এক শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

বুধবার (২০ এপ্রিল) সকালে ৮টার দিকে কুমিরার গুপ্তছড়া ও মাইটভাঙা ঘাটের মাঝামাঝি স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
গুপ্তছড়া ঘাটের ইজারাদার মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, চট্টগ্রাম থেকে সন্দ্বীপ যাওয়ার পথে ঝড়ের কবলে পড়ে একটি স্পিডবোট ডুবে যায়। বোটে ২০ জন যাত্রী ছিল। তাদের মধ্যে ১৯ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে, একজন ছিল মৃত। এছাড়া আরও এক শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণির ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ১০টা থেকে অনলাইনের মাধ্যমে এই প্রক্রিয়া শুরু হয়।

এই ভর্তি পরীক্ষা দুই ধাপে নেয়া হবে। এর মধ্যে প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা (প্রাথমিক বাছাই) দুই শিফটে নেয়া হবে আগামী ৪ জুন। এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা ১৮ জুন চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১৬ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে অনলাইনের মাধ্যমে বুয়েটের স্নাতক ভর্তির প্রাথমিক আবেদন শুরু হবে। চলবে ২৫ এপ্রিল বেলা ৩টা পর্যন্ত। মোবাইল ফোন বা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে আবেদন ফি জমা দেয়া যাবে ২৬ এপ্রিল বেলা ৩টা পর্যন্ত।

‘ক’ গ্রুপে (প্রকৌশল ও বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ) আবেদন, প্রাক-নির্বাচনী ও মূল ভর্তি বাবদ এক হাজার টাকা এবং ‘খ’ গ্রুপে (প্রকৌশল ও বিভাগগুলো, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ ও স্থাপত্য বিভাগে) এক হাজার দুই শ’ টাকা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ফি দিয়ে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম এবং অন্যান্য এলাকার ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীভুক্ত প্রার্থীদের প্রকৌশল বিভাগ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মোট তিনটি এবং স্থাপত্য বিভাগে একটি সংরক্ষিত আসনসহ মোট আসনসংখ্যা এক হাজার ২৭৯টি।

প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা (প্রাথমিক বাছাই) দুই শিফটে নেয়া হবে আগামী ৪ জুন। ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের জন্য মোট ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সময় এক ঘণ্টা।

প্রথম শিফটের পরীক্ষা সকাল ১০টায় ও দ্বিতীয় শিফটের পরীক্ষা বেলা ৩টায় শুরু হবে। প্রাক্‌-নির্বাচনী পরীক্ষায় নেগেটিভ মার্কিং করা হবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য প্রাপ্ত নম্বর থেকে প্রশ্নের মানের ২৫% কেটে নেয়া হবে।

১১ জুন মূল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যোগ্য আবেদনকারীদের নাম প্রকাশ করবে বুয়েট।

আগামী ১৮ জুন বুয়েটের মূল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এই পরীক্ষায় রয়েছে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মডিউল-এ ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের জন্য গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন। বেলা ২টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত মডিউল-বি ‘খ’ গ্রুপের মুক্তহস্ত অঙ্কন এবং দৃষ্টিগত ও স্থানিক ধীশক্তি।

এরপর আগামী ৬ জুলাই নির্বাচিত ও অপেক্ষমাণ প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করা হবে।

আবেদন করার নিয়ম ও ভর্তির নির্দেশিকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ভর্তি পরীক্ষার সব কার্যক্রমের খবর বুয়েটের ওয়েবসাইট ও নোটিশ বোর্ডে পাওয়া যাবে।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: অধিকৃত পশ্চিমতীরে রোববার ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে দুই ফিলিস্তিনি নারী নিহত হয়েছেন।
ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বেথেলহেম শহরের কাছে ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে ৪০ বছর বয়সি এক নারী নিহত হয়েছেন।
হামলায় নিহত ওই নারীর নাম গাদা ইব্রাহিম সাবাতিয়েন। তিনি ছয় সন্তানের মা। খবর আলজাজিরার।
এদিকে ইসরাইলি পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, হেবরন শহরে সীমান্ত এলাকায় এক নারী ইসরাইলি এক পুলিশ কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাত করেন। এ সময় ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে ওই নারী প্রাণ হারান।
এর একদিন আগে শনিবার জেনিনের একটি শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে আরও এক ফিলিস্তিনি নিহত হন। রোববার জেরিকো এবং তুলকারেম এলাকায় সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। যুগান্তর

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে ম্যাক্রোঁর সঙ্গে মেরিন লা পেনের মধ্যে

ঢাকা: ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রথম দফার ভোট রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এবারের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন ১২ জন। এদের মধ্যে চারজন নারী ও আটজন পুরুষ। খবর আনাদোলুর।

প্রথম দফার নির্বাচনে শীর্ষ দুই প্রার্থী— প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ও কট্টর ডানপন্থি মেরিন লা পেনের মধ্যে আগামী ২৪ এপ্রিল দ্বিতীয় দফার (রান-অফ) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ফ্রান্সের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ নির্বাচিত হলে ২০ বছরের মধ্যে একমাত্র ফরাসি প্রেসিডেন্ট হিসেবে টানা দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকবেন।

এদিকে প্রথম দফার নির্বচনে বাদ পড়া ১০ প্রার্থী চূড়ান্ত নির্বাচনে কট্টর ডানপন্থি প্রেসিডেন্ট প্রার্থী মেরিন লা পেনকে ভোট না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

এ ১০ প্রার্থী একজোট হয়ে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ভোটারদের।

এবারের নির্বাচনে জয়ের আশা দেখছেন ২০১৭ সালের নির্বাচনে বড় কোনো দলের সমর্থন ছাড়াই প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়া ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তবে ৪৪ বছর বয়সি ম্যাক্রোঁকে এবার কঠিন চ্যালেঞ্জই জানাচ্ছেন মেরিন লা পেন।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

মানচিত্র থেকে হারাচ্ছে গ্রামের পর গ্রাম

ঢাকা: কুড়িগ্রামে কয়েক দিন ধরে বৃষ্টির ফলে তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় শুরু হয়েছে তীব্র ভাঙন। এ সময় ছয়টি বাড়ি ভেঙেছে। হুমকিতে রয়েছে আরো ৭০-৮০টি বাড়ি। অসময়ে তিস্তার ভাঙনে দিশেহারা হয়ে পড়েছে মানুষ।

জানা গেছে, কুড়িগ্রাম জেলার ৩টি উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে গেছে আগ্রাসী তিস্তা নদী। প্রায় ৪০ কিলোমিটারব্যাপী এই নদীটির ভাঙন কবলিত বাম তীরে মাত্র ৫ কিলোমিটার জায়গা পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। বাকি ৩৫ কিলোমিটার উন্মুক্ত নদীর অনেক জায়গায় চলছে এখন ভাঙন। গত তিন দিনে বৃষ্টির ফলে তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বিঘার পর বিঘা বোরো ধান, ফলদ ও কাঠের গাছসহ ভেঙে যাচ্ছে বিল্ডিং বাড়ি। এখন হুমকিতে রয়েছে প্রায় ৭০ থেকে ৮০টি পরিবার।

গত কয়েক বছর ধরে তিস্তার ভয়াবহ আগ্রাসনে রাজারহাটের ঘড়িয়ালডাঙ্গা ও বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের চতুরা, মন্দির, ডাংরারহাট, রামহরি, পাড়ামৌলা ও গাবুর হালান গ্রামের একাংশ নিশ্চিহ্ন করে ফেলেছে। মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাচ্ছে আরো গ্রামের পর গ্রাম। বসতভিটা ও জমি হারিয়ে মাথা গোঁজার ঠাঁই না পেয়ে বুক ফাঁটা কান্নায় ভারি হয়ে আসছে এখানকার আকাশ-বাতাস। নদী ভাঙনের হুমকিতে থাকা মানুষ এখন জরুরি ভিত্তিতে ভাঙন প্রতিরোধ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

জেলার রাজারহাট উপজেলার ঘরিয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের গতিয়াসাম মন্ডলপাড়া গ্রামের মৃত শরাফত মাস্টারের ছেলে মোস্তাক আহমেদ (৫৬) হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ‘গতবার নদী বাড়িভিটা সউগ (সব) খায়া (খেয়ে) গেইল (ফেলছে)। হালের গরু বিক্রি করি নতুন বাড়ি করনু (করছি)। এবারো ভাঙবের নাগছে (লাগছে)। কামলা দিয়া খাং। এই বাড়ী গেইলে (গেলে) করিম কি। মোর পকেটোত বিষ খাওয়ার মত টেকা নাই।’

ঘরিয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের গতিয়াসাম এলাকার সাবেক মেম্বার শহিদুল ইসলাম জানান, বর্ষা আসার আগেই হঠাৎ করে ভাঙন বৃদ্ধি পাওয়ায় নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে বসতবাড়ি, গাছপালাসহ আধাপাকা বোরো ধান ক্ষেত। ভাঙনের হুমকিতে রয়েছে দুটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি কমিউনিটি ক্লিনিক, ৮টি মসজিদ ও একটি মাদরাসাসহ শত শত বিঘা আবাদী জমি।

তিনি বলেন, বর্তমানে এই ইউনিয়নে গতিয়াসাম, রামহরি, কালিরহাট ও মেদনীপুর গ্রামে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছে সহায়তা চেয়েও পাওয়া যায়নি। তারা বলছে, এই মুহূর্তে তাদের কাছে কোনো বাজেট নেই।

রাজারহাট উপজেলার ঘরিয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আব্দুল কুদ্দুছ প্রামাণিক জানান, আমার ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ড চরম হুমকিতে রয়েছে। আমরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছে গিয়েছি। তাদের কোনো বাজেট নেই বলে তারা জানিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ আমাদের ভাঙনকবলিত পরিবারগুলোকে বাঁচান। না হলে আমরা বিশাল ক্ষতিগ্রস্ত হবো।’

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, হঠাৎ বৃষ্টির ফলে তিস্তায় অরক্ষিত এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে। সমীক্ষা প্রকল্প অনুমোদন করা হলেও এখনো প্রকল্প চূড়ান্ত করা হয়নি বলে জানান এই কর্মকর্তা।

সূত্র : ইউএনবি

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: পার্লামেন্টে বিরোধী দলের আনা অনাস্থা ভোটে হেরে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রিত্ব হারালেন ইমরান খান। দেশটির ইতিহাসে তিনিই একমাত্র সরকার প্রধান যাকে এভাবে ক্ষমতা হারাতে হলো।

শনিবার দিনভর নানা নাটকীয়তার পর দিনের একেবারে শেষ প্রান্তে পার্লামেন্টে এ বিষয়ে ভোটাভুটি শুরু হয়। তার আগে পদত্যাগ করেন স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার।

৩৪২ আসনের জাতীয় পরিষদে অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়েছে ১৭৪টি। প্রস্তাবটি পাস হওয়ার জন্য প্রয়োজন ছিল ১৭২টি।

স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারের পদত্যাগের পর অধিবেশনে সভাপতিত্ব করা পাকিস্তান মুসলিম লীগের (নওয়াজ) আয়াজ সাদিক মধ্যরাতে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

পিএমএল-এন মুখপাত্র মরিয়ম আওরঙ্গজেব জানিয়েছেন, সভাপতিত্ব করায় সাদিক তার নিজের ভোট দিতে পারেননি আর ইমরানের দল পিটিআইয়ের ভিন্নমতের এমপিরা ভোটদানে বিরত থাকেন।

ফলাফল ঘোষণার পর সাদিক প্রধানমন্ত্রী হওয়ার বিরোধী দলীয় প্রার্থী শাহবাজ শরীফকে কথা বলার ফ্লোর দেন। শাহবাজ শরীফ সম্মিলিত বিরোধী নেতাদের ধন্যবাদ জানান এবং বলেন ‘রাজনীতির নতুন যুগে’ প্রতিহিংসা থাকবে না।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকাঃ পাকিস্তানের পার্লামেন্টে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব নাকচ করে যে সিদ্ধান্ত দেশটির ডেপুটি স্পিকার দিয়েছিলেন, তা বাতিল করে দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আহ্বানে প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেয়ার যে ঘোষণা দিয়েছিলেন, তাও আর টিকছে না। প্রধান বিচারপতি উমর আতা বান্দিয়ালের নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারকের বেঞ্চ জাতীয় পরিষদ পুনরুজ্জীবিত করে শনিবার আস্থা ভোট করার নির্দেশ দিয়েছে।
দিনভর নাটকীয়তার পর বহুল প্রত্যাশিত এই রায় ঘোষণা দিয়েছেন পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ সর্বসম্মতিক্রমে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই রায় দেন। রায়ে বলা হয় আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় অধিবেশন বসবে এবং ওই অধিবেশনেই ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান বিচারপতি বলেন, ডেপুটি স্পিকার গত ৩ এপ্রিল অনাস্থা ভোটকে খারিজ করে দেন। কিন্তু তার এই ঘোষণা অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হলো। মূলত স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় এই রায় হওয়ার কথা থাকলেও তা এক ঘণ্টা দেরি হয়। রায় উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা হয়। বিভিন্ন স্থানে মোতায়েন করা হয় দাঙ্গা পুলিশ।
রায় প্রদানের পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার সিকান্দার সুলতান রাজাকে তলব করেছে সুপ্রিম কোর্ট। তিনি আইনি দলকে সাথে নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে পৌঁছেন। রায় ঘোষণার সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী, গণমাধ্যমকর্মী এবং প্রধান রাজনীতিবিদরা। ছিলেন পিএমএল-এন দলের শেহবাজ শরিফ এবং পিপিপি নেতা বিলওয়াল ভুট্টো জারদারি।
এর আগে, বিকেলে পঞ্চম দিনের মতো আলোচিত এ মামলার শুনানি শুরু হয়। পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি উমর আতা বান্দিয়ালের নেতৃত্বে এতে অংশ নেন বিচারপতি মুনীব আখতার, বিচারপতি আইজাজুল আহসান, বিচারপতি মাজহার আলম ও বিচারপতি জামাল খান মন্দোখেল।
শুনানিতে প্রধান বিচারপতি বলেন, এটি স্পষ্ট যে, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করে জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম খান সুরির গত ৩ এপ্রিলের রুলিং ভুল ছিল। তিনি বলেন, মূল প্রশ্ন হলো, সামনে কী ঘটবে। এখন কিভাবে এগোতে হবে সে বিষয়ে পিএমএল-এন কৌঁসুলি ও পাকিস্তানের অ্যাটর্নি জেনারেল খালিদ জাভেদ খান আদালতকে নির্দেশনা দেবেন। আমাদের জাতীয় স্বার্থ দেখতে হবে।
রায় ঘোষণাকালে পাকিস্তানি পার্লামেন্টের স্পিকার আসাদ কায়সারকে আগামী শনিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় বিশেষ অধিবেশন আহ্বানের নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। ওই দিনই প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ভোট শেষ হওয়া পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি করা যাবে না বলেও নির্দেশ দিয়েছেন পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট।
বিচারপতিদের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চে সর্বসম্মতভাবে এ রায় ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ের পরপরই আদালত চত্বরে বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীরা আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে শুরু করেন।
রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আগেই পাকিস্তানের সর্বোচ্চ আদালত প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। টেলিভিশনের ফুটেজে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন দেখা গেছে। রায় উপলক্ষে আদালতে বিপুল সংখ্যক আইনজীবী, রাজনীতিবিদ ও গণমাধ্যমকর্মীর উপস্থিতি দেখা যায়।
গত রোববার ইমরান খানের বিরুদ্ধে বিরোধীরা অনাস্থা প্রস্তাব আনলে সেটি খারিজ করে দেন স্পিকার। এরপর প্রেসিডেন্টের কাছে পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। তার প্রস্তাবে পার্লামেন্ট ভেঙে দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। এতে পাকিস্তানের রাজনৈতিক পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হয়ে ওঠে। বিরোধীদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ডেপুটি স্পিকার অসাংবিধানিকভাবে অনাস্থা ভোট বাতিল করেছেন। শেষ পর্যন্ত এ বিষয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে একটি নোটিশ জারি করে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। এর আগে গত ৮ মার্চ ইমরান খানের বিরুদ্ধে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেয় পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলো। এ প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা ও ভোটাভুটির জন্য অধিবেশন ডাকতে স্পিকারের প্রতি লিখিত আবেদন জানায় তারা। ইমরান খান তখনো আত্মবিশ্বাসী, তিনি বিরোধীদের উল্টো এক হাত দেখে নেয়ার কথা জানান। বলেন, অনাস্থা ভোটে বিরোধীরা হেরে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত কি না! পাকিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী, অনাস্থা প্রস্তাব উত্থাপনের পর স্পিকারকে ১৪ দিনের মধ্যে অধিবেশন ডাকার কথা ছিল। কিন্তু সে সময় রাজধানী ইসলামাবাদে ইসলামী সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে দুই দিনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকের জন্য সেই তারিখ পিছিয়ে দেয়া হয়। এরপর ২৫ মার্চ শুক্রবার আবারো অধিবেশন ডাকা হলেও সেদিন অনাস্থা প্রস্তাব উত্থাপন ছাড়াই ২৮ তারিখ পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করেন স্পিকার। ২৮ তারিখের অধিবেশনে অনাস্থা প্রস্তাব উত্থাপন করেন বিরোধীদলীয় নেতা শাহবাজ শরিফ। সংবিধান অনুযায়ী প্রস্তাব উত্থাপনের পর তিন দিন পার হলেই ভোটাভুটি করা যায়। তবে ভোটাভুটির জন্য সাত দিনের বেশি সময় নেয়া যাবে না। ২৮ তারিখ প্রস্তাব উত্থাপনের পর আবারো ৩১ মার্চ পর্যন্ত পার্লামেন্ট অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করেন ডেপুটি স্পিকার কাসিম খান সুরি। এরপর সর্বশেষ এ নিয়ে ৩ এপ্রিল ভোটাভুটির তারিখ নির্ধারিত হয়।
অনাস্থা প্রস্তাব আনার প্রথম থেকেই ইমরান খানকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী ছিল বিরোধীরা। তাদের পক্ষে ছিল ১৬২ আইনপ্রণেতাও। যদিও ইমরানকে সরাতে প্রয়োজন ছিল ১৭২ ভোটের। তবে অনাস্থা প্রস্তাব আনার পর হঠাৎ করেই ইমরানের দল পিটিআইর ২৪ এমপি তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে বসে। তারা ইমরান খানের পক্ষত্যাগের ঘোষণা দেয়। এতে প্রচণ্ড চাপে পড়ে যান ইমরান। বিরোধীদের আত্মবিশ্বাস আরো দৃঢ় হয়। ভোটের দিন যত ঘনিয়ে আসে ইমরানের বিপদ তত বাড়তে থাকে। একদম শেষ মুহূর্তে সরকারি জোট ছাড়ার ঘোষণা দেয় মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট। তারা তাদের পাঁচ আসন নিয়ে বিরোধীদের দলে যোগ দেয়ার ঘোষণা দেয়। এর মধ্য দিয়ে ইমরান খানের অনাস্থা ভোটে হারা সময়ের ব্যাপারে পরিণত হয়।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকাঃ ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। এ পরীক্ষায় পাসের হার ৫৫ দশমিক ১৩। আজ মঙ্গলবার দুপুরে এ ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

১ এপ্রিল সারা দেশের একযোগে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নপত্রে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হয়। জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের কাছে এসএমএসের মাধ্যমে ফল পৌঁছে যাবে। এ ছাড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট থেকেও ফলাফল জানা যাবে। এমবিবিএস পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০।

ফল দেখতে ক্লিক করুন এখানে

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকাঃ চরম অর্থনৈতিক সংকটে গণঅসন্তোষের মধ্যে শ্রীলংকার ক্ষমতাসীন জোটেও ভাঙন দেখা দিয়েছে। এর ফলে পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের নেতৃত্বাধীন জোট।

মঙ্গলবার শ্রীলংকার পত্রিকা আদাদেরনা জানিয়েছে, শ্রীলংকা ফ্রিডম পার্টি (এসএলএফপি), শ্রীলংকা পদুজানা পেরামুনা (এসএলপিপি), সিলোন ওয়ার্কার্স কংগ্রেসের (সিডব্লিউসি) ৪২ জন আইনপ্রণেতা মঙ্গলবার অধিবেশনে জোট থেকে বেরিয়ে গিয়ে স্বতন্ত্র সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালনের ঘোষণা দেন।

বিক্ষোভের মধ্যে মন্ত্রিসভার সদস্যদের পদত্যাগের পর প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে সর্বদলীয় সরকার গঠনের যে আহ্বান জানিয়েছে, তাও প্রত্যাখ্যান করেছে বিরোধী দলগুলো। তারা খোদ প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করছে।

সূত্র : নিক্কেই এশিয়া।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail