Home Archives
Monthly Archives

March 2022

ঢাকা: নতুন করে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে চীনের সবচেয়ে জনবহুল শহর সাংহাইয়ে। এ জন্য নির্ধারিত সময়ের দু’দিন আগেই কর্তৃপক্ষ এ শহরের পশ্চিমাঞ্চলের কিছু এলাকায় লকডাউন দিয়েছে। ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া সত্ত্বেও সেখানে সংক্রমণ এক তৃতীয়াংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দিয়েছে। এছাড়া পুরো চীনে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।
সাংহাইয়ের লোকসংখ্যা দুই কোটি ৬০ লাখের মতো। তৃতীয় দিনে চীনের অর্থনীতির প্রাণকেন্দ্র সাংহাইয়ে হুয়াংহো নদী বরাবর কর্মকর্তারা কয়েকটি ভাগে ভাগ করেছেন। এক অংশে রয়েছে নদীটির পূর্বাঞ্চলের অর্থনৈতিক জোন থেকে পশ্চিমে ঐতিহাসিক প্রাণকেন্দ্র পর্যন্ত।অন্যদিকে শিল্প শহর পুডংয়ে চলছে গণহারে পরীক্ষা। পূর্বাঞ্চলের জনগণ সোমবার থেকে লকডাউনে রয়েছে। অন্যদিকে পশ্চিমাঞ্চলের জনসাধারণের চারদিনের লকডাউন শুরু হওয়ার কথা ছিল আগামী শুক্রবার থেকে। কিন্তু তার দু’দিন আগেই এই লকডাউন শুরু হয়েছে। সাংহাইয়ের মতো একটি বড় মেট্রোপলিসকে যদি আবার পূর্ণাঙ্গ লকডাউন দেয়া হয় তাতে জাতীয় প্রবৃদ্ধি শতকরা চারভাগ কমে যাবে বলে মনে করছেন চাইনিজ ইউনিভার্সিটি অব হংকং, সিংহুয়া ইউনিভার্সিটি ও অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোর অর্থনীতিবিদরা। তারা এমন আভাস দিয়েছেন মধ্য মার্চে।
সাংহাইয়ে বুধবার লক্ষণহীন করোনায় আক্রান্ত রেকর্ড করা হয়েছে ৫৬৫৬ এবং লক্ষণযুক্ত সংক্রমণ রেকর্ড করা হয়েছে ৩২৬। মঙ্গলবারের তুলনায় এ সংখ্যা অনেক বেশি। মঙ্গলবার লক্ষণবিহীন সংক্রমণ হয়েছিল ৪৩৮১ জন। লক্ষণযুক্ত আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯৬ জন। লক্ষণবিহীন করোনা আক্রান্তকে নতুন করে সংজ্ঞায়িত করছে চীন। এতে বলা হচ্ছে লক্ষণবিহীন সংক্রমণ বলা হবে তখন, যখন তা পরবর্তীতে লক্ষণযুক্ত সংক্রমণে পরিণত হয়।
পশ্চিমাঞ্চলে বসবাসকারীদের অনেকে মঙ্গলবার বলেছেন, হাউজিং কমিটি থেকে তাদেরকে নোটিশ দেয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, আগামী সাতদিন তারা বাসা থেকে বাইরে যেতে পারবেন না। একটি নোটিশে বলা হয়েছে, আমরা খুব শিগগিরই স্বাভাবিক জীবন শুরু করবো। কিন্তু পরবর্তী সময়ের জন্য আমরা সবাইকে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে গৃহীত ব্যবস্থা ঘনিষ্ঠভাবে অনুসরণ করার অনুরোধ করছি। অনেকে একত্রিত হবেন না। চলাচল কমিয়ে ফেলুন।
পক্ষান্তরে শহরের দক্ষিণে মিনহাংয়ে বসবাস করেন কমপক্ষে ২৫ লাখ মানুষ। তারা বলেছে, আগামী ৫ই এপ্রিল পর্যন্ত তারা সব রকম পাবলিক বাস চলাচল স্থগিত রাখবে। বুধবার সাংহাই কর্তৃপক্ষ সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, লকডাউন শুরু হয়েছে সোমবার। এরই মধ্যে তারা ৯১ লাখ নিউক্লিক এসিড টেস্ট করেছেন। আরও বলা হয়েছে, তারা বিভিন্ন স্থান, যেমন সরকারি ভবন, নির্মাণ স্থাপনা, সামুদ্রিক পণ্যের মার্কেট এবং স্কুলে এক মাস ধরে জীবাণুনাশক কর্মকা- শুরু করেছে।
এরই মধ্যে পুডংয়ের ব্যবসায়িক জীবনযাত্রা মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। শহরে অটো নির্মাণ স্থাপনায় প্রভাব লেগেছে লকডাউনে। তেসলার সঙ্গে যোগ দিয়েছে আপটিভ এবং থিসেনক্রুপ। তারা তাদের কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে করোনার কারণে গৃহীত পদক্ষেপের কারণে। সাংহাই সরকার বলেছে, তাদের অফিসিয়াল উইচ্যাট একাউন্টে মঙ্গলবার দিনের শেষের দিকে বলেছে- যারা নিউক্লিক এসিড টেস্ট পরীক্ষা করাতে অস্বীকৃতি জানাবে, তাদেরকে দায় বহন করতে হবে।
চীনের মূল ভূখন্ডে দু’সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন নতুন করে স্থানীয় পর্যায়ে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। বছরের প্রথম দুই মাসে যে হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছিল, তার চেয়ে বেশি হারে এখন সংক্রমণ দেখা দিচ্ছে। মানব জমিন

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

নিউজপ্রিন্ট সংকট ও মূল্যবৃদ্ধির কারণে ইংরেজি দৈনিক ‘দ্য আইল্যান্ড’ ও তার সহ–প্রতিষ্ঠান সিংহলিজ পত্রিকা ‘দিবায়িনা’ ছাপানো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। উপালি নিউজপেপার লিমিটেড এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আমরা দুঃখের সঙ্গে আমাদের পাঠকদের জানাচ্ছি যে নিউজপ্রিন্ট সংকটের কারণে পরবর্তী নোটিশ না দেওয়া পর্যন্ত দ্য আইল্যান্ডের ছাপা সংস্করণ প্রকাশ বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছি।’

১৯৮১ সালের অক্টোবর থেকে ‘দ্য আইল্যান্ড’ পত্রিকা প্রকাশিত হয়ে আসছে। এখন থেকে পত্রিকাটি ই-পেপার হিসেবে প্রকাশিত হবে।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে পর্যটন খাত ও প্রবাসী আয় ধাক্কা খাওয়ায় দেশটির ইতিহাসে বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময়ের সবচেয়ে বড় সংকটে পড়েছে শ্রীলঙ্কা। এই মাসের শুরুর দিকে সরকার মার্কিন ডলারের বিপরীতে রুপি বিনিময়ের ক্ষেত্রে ভাসমান মুদ্রানীতি গ্রহণ করলে নিউজপ্রিন্ট আমদানির খরচ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেড়ে যায়।
বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় সংকটে শ্রীলঙ্কা মারাত্মক অর্থনৈতিক ও জ্বালানি–সংকটে পড়েছে। আকস্মিকভাবে নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে গেছে। জ্বালানি–সংকটের কারণে হাজারো মানুষ ফিলিং স্টেশনের সামনে কয়েক ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে বাধ্য হচ্ছেন। প্রতিদিন ঘণ্টার পর ঘণ্টা লোডশেডিং হচ্ছে।

মুদ্রা বিনিময় সংকটের কারণে আমদানি বিধিনিষেধ থাকায় সব ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের স্বল্পতা দেখা দিয়েছে। অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) দ্বারস্থ হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে শ্রীলঙ্কা। পাশাপাশি ভারতেরও সহযোগিতা চেয়েছে দেশটি। প্রথম আলো

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail
ঢাকা: খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, জনগণের জন্য সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সমাজিক সুবিচার নিশ্চিতের মাধ্যমে লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতাকে সুসংহত করতে হবে। সিন্ডিকেট আর কারসাজির কারণে নিত্যপণ্যেল দাম বেড়েই চলছে। দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতিতে জনগণ দিশেহারা। দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে নিয়ে আসতে হবে। জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় জুলুম, অন্যায়, অবিচার, ঘুষ-দুর্নীতি, বেকারত্ব মুক্ত দেশ গঠনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
আজ বিকাল ৩টায় বিজয়নগরস্থ মজলিস মিলনায়তনে সংগঠনের ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা আজীজুল হকের সভাপতিত্বে ও সহসাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলাচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের যুগ্মমহাসচিব অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল।
অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা পেশ করেন ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহসভাপতি মোঃ জহিরুল ইসলাম, মুহাম্মদ জিল্লুর রহমান, কাজী আরিফুর রহমান, নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া, কবি খালেদ সানোয়ার, ছাত্র মজলিস নেতা নূর মুহাম্মদ, মোঃ মশিউর রহমান, মুফতি আবদুল্লাহ আল মাসুম, মাওলানা শরীফ উদ্দিন প্রমুখ।
আলোচনা শেষে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদানদের জন্য ও দেশ-জাতির কল্যাণ কামনায় দোয়া- মোনাজাত পরিচালনা করেন মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের। এর আগে ভোরবেলা খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: সরকারের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এখনো সময় আছে নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন, অন্যথায় পালানোর পথ খুঁজে পাবেন না।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে মহান স্বাধীনতা দিবসের শোভাযাত্রার উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, স্বাধীনতার এই শোভাযাত্রার মাধ্যমে সরকারের কাছে এই বার্তা যাচ্ছে যে, তোমার দিন শেষ, জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা ছাড়ো। অন্যথায় সকল স্বৈরাচারীদের যে পরিণতি হয়েছে তোমারও তাই হবে।

মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে লাখো শহীদের আত্মত্যাগ এবং মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিষয়টিও তুলে ধরেন বিএনপি মহাসচিব।

দলীয় প্রধান বেগম খালেদা জিয়াকে প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আখ্যা দিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ১৯৭১ সালে চট্টগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রাণিত করেছিলেন। নয় মাস কারাবরণ করেছেন আমাদের নেত্রী। তিনি এর মাধ্যমে প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আমাদের কাছে চিহ্নিত হয়েছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছরে আজ কথা বলার অধিকার নেই, গণতান্ত্রিক অধিকার নেই, জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করার অধিকার নেই, বিদ্যুৎ-গ্যাসসহ সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির মূল্য লাগামহীন বেড়েছে।

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য রুখে দাঁড়াতে হবে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, যদি বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হয়, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হয়, তাহলে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে। সকল রাজনৈতিক দলকে ঐক্যবদ্ধ করে এই সরকারকে পরাজিত করতে হবে।

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বিএনপি’র পক্ষ থেকে এ শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। ঢাকা মহানগর বিএনপি দক্ষিণ ও উত্তর শাখা এর আয়োজন করে।

এতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসমূহের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা অংশ নেন। নয়া পল্টন সড়ক থেকে শুরু হওয়া শোভাযাত্রাটি জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়। নয়া দিগন্ত

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: রাজধানীর শাহজাহানপুরে আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম টিপু হত্যাকাণ্ডের রহস্য শিগগিরই উদ্ঘাটন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আজ শনিবার সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে তদন্ত চলছে। যারাই এ ঘটনায় জড়িত থাকুক, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।’

তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই এর পেছনে কারা, নাটের গুরু কারা, কারা ঘটনা ঘটিয়েছে, সব কিছুই খোলসা করে আপনাদের জানিয়ে দেব।’

এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘পলিটিক্যাল কিলিংয়ের বিষয়ে আমরা এখনই কোনো মন্তব্য করতে চাই না। আমরা আশা করি, খুব শিগগিরই এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করতে পারব।’

এ সময় টিপু হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে গণমাধ্যমকে দায়িত্বশীল আচরণের আহ্বান জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ ভোর ৫টা ৫৬ মিনিটে দিনের প্রথম প্রহরে জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা। প্রথমে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানান। এরপর জাতির সূর্যসন্তানদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে এক মিনিট নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন তারা। এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর একটি দল রাষ্ট্রীয় অভিবাদন জানায় এবং বিউগলে করুণ সুর বেজে উঠে।
পরে দলীয় প্রধান হিসেবে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান শেখ হাসিনা। এদিকে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর স্মৃতিসৌধের পরিদর্শন বইতে সই করেন প্রেসিডেন্ট। মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এবং তিন বাহিনীর প্রধানরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকায় কর্মরত বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিকরাও স্মৃতিসৌধে ছিলেন।
ভোরে বীর শহীদদের ফুলেল শ্রদ্ধা জানান জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।
সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের শ্রদ্ধা জানানোর পর সাধারণ মানুষের জন্য স্মৃতিসৌধ খুলে দেয়া হয়।
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু জাদুঘরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এসময় আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ কালরাতে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী বাঙালি জাতির কণ্ঠ চিরতরে স্তব্ধ করে দেয়ার লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে অপারেশন সার্চ লাইটের নামে নিরস্ত্র বাঙালিদের ওপর অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলার মাধ্যমে বাঙালি জাতির জীবনে যে বিভীষিকাময় যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়েছিল- দীর্ঘ ৯ মাসে মরণপণ লড়াইয়ের মাধ্যমে দামাল বাঙালি এক সাগর রক্তের বিনিময়ে সে যুদ্ধে বিজয় লাভ করে স্বাধীনতার লাল সূর্য ছিনিয়ে আনে। ১৯৭০-এর সাধারণ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে জয়লাভ করা সত্ত্বেও বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কাছে পাকিস্তানি সামরিক জান্তা ক্ষমতা হস্তান্তর না করে পাকিস্তানি সেনারা বাঙালি বেসামরিক লোকজনের ওপর গণহত্যা শুরু করে। তাদের এ অভিযানের মূল লক্ষ্য ছিল আওয়ামী লীগসহ তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের প্রগতিশীল সকল রাজনৈতিক নেতাকর্মী এবং সকল সচেতন নাগরিককে নির্বিচারে হত্যা করা। সেনা অভিযানের শুরুতেই হানাদার বাহিনী বঙ্গবন্ধুকে তার ধানমণ্ডির বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের আগে বঙ্গবন্ধু ২৬শে মার্চ প্রথম প্রহরে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। শুরু হয়ে যায় স্বাধীনতার যুদ্ধ। এর আগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ দেয়া ভাষণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মূলত স্বাধীনতা সংগ্রামের দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন। সর্বকালের সেরা এই ভাষণ এখন বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীর চর সৈয়দপুরের আল-আমিননগর এলাকায় একটি কার্গো জাহাজের ধাক্কায় যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া লাশের মধ্যে একজন পুরুষ ও একজন নারী রয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি। আজ দুপুরে এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বহু হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে।
শীতলক্ষ্যার দু’পাড়ে নিখোঁজের স্বজনরা ভিড় করছেন। তাদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠছে আশপাশের পরিবেশ। উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন নৌপুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আজ দুপুরে শীতলক্ষ্যার কয়লাঘাট এলাকায় একটি কার্গো জাহাজ যাত্রীবাহী লঞ্চকে ধাক্কা দেয়। এরপর কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই লঞ্চটি ডুবে যায়। লঞ্চটিতে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিল। বেশির ভাগই ছিল শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ১৫-২০ জনের মতো সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও বাকিরা নিখোঁজ রয়েছেন।
বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক (নৌ-নিরাপত্তা বিভাগ) বাবু লাল বৈদ্য জানান, একটি জাহাজের ধাক্কায় লঞ্চটি ডুবে গেছে। এখনো অনেকে নিখোঁজ। উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।
নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে। মানব জমিন

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: ক্ষমতসীন পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফে (পিটিআই) বিদ্রোহে রাস্তায় বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে। বিদ্রোহী পার্লামেন্ট সদস্যদের মধ্যে আছেন মালিক আহমেদ হাসান দেহার। তার এমন পল্টি খাওয়ায় পিটিআই কর্মীরা সমবেত হন তার বাড়ির বাইরে। অন্যদিকে পিটিআইয়ের আরেক ভিন্ন মতাবলম্বী নূর আলম খানের বাসভবনের বাইরে অবস্থান নেন বিরোধী দল জমিয়তে উলেমায়ে ইসলাম-ফজলের (জেইউআইএফ) নেতাকর্মীরা। তারা নূর আলম খান ও তার পরিবারকে নৈতিক সমর্থন দেয়ার প্রত্যায় ঘোষণা করে বিক্ষোভ করেন।

এ খবর দিয়ে অনলাইন ডন বলছে, পার্লামেন্ট সদস্য মালিক আহমেদ হাসান দেহারের মুলতানের নাঙ্গানা চকে বাড়ির বাইরে লাঠিসোটা ও ইটপাটকেল নিয়ে বিক্ষোভ করছিলেন পিটিআই সমর্থকরা। এ সময় তারা নানা রকম স্লোগান দিচ্ছিলেন। অন্যদিকে দৃশ্যত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনীত অনাস্থা প্রস্তাবে ভোট দেয়ার পক্ষে আছেন পার্লামেন্ট সদস্য রানা কাসিম নূন। বিক্ষোভকারীরা এই দুই পার্লামেন্ট সদস্যের পোস্টারে আগুন দিয়েছে।

পিটিআইয়ের প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নাদিম কুরেশি খালিদ জাভেদ ওয়ারিয়াচ প্রতিবাদে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। নাদিম কুরেশি মিডিয়াকে বলেছেন, ভিন্ন মতাবলম্বীদের অবশ্যই পাবলিক সেন্টিমেন্টে আঘাত দেয়া উচিত নয়।

এভাবে পল্টি খাওয়া সদস্যদেরকে অবশ্যই পদত্যাগ করে পিটিআই প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে। না হলে জনগণের রায় মেনে নিতে হবে। ওদিকে পার্লামেন্ট সদস্য মালিক আহমেদ হাসান দেহারের বাড়ির যাতে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হতে না পারে সেজন্য তার সমর্থকরা লাঠিসোটা হাতে সেখানে অবস্থান নিয়েছেন। তারা তাদের নেতার পক্ষে স্লোগান দিচ্ছিলেন।

ওদিকে পিটিআইয়ের পার্লামেন্ট সদস্য নূর আলম খানের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে তার বাসভবনের বাইরে র‌্যালি করেছেন জেইউআইএফের কর্মীরা। দলটির নিরাপত্তা বিষয়ক শাখার আনসারুল ইসলাম এবং জেইউআইএফের বেশ কিছু কর্মী জড়ো হন তার বাড়ির সামনে এবং তার সমর্থনে তারা স্লোগান দিচ্ছিলেন। এতে নেতৃত্ব দিয়েছেন সাবেক মন্ত্রী আসিফ ইকবার দাউদজাই, সাবেক প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য খালিদ ওয়াকার চামকানি এবং দলের অন্য নেতারা। দলটির প্রাদেশিক মুখপাত্র আবদুল জলিল জান বলেছেন, নূর আলম খানের প্রতি সংহতি ও তাকে নৈতিক সমর্থন দিতে এই র‌্যালি আয়োজন করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নূর আলম খানকে দল নিশ্চিত করতে চায় যে, তিনি এবং তার পরিবারকে বিচ্ছিন্ন বা নিঃসঙ্গ রাখবে না দল। নূর আলম খান পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) সাবেক একজন সদস্য। ২০১৮ সালের সাধারণ নির্বাচনের আগে যোগ দেন পিটিআইয়ে।

ওদিকে রাজধানী ইসলামাবাদে অবস্থিত সিন্ধু হাউজে পার্লামেন্ট সদস্য ওয়াজিহা আকরামকে দেখা যাওয়ার পর পরই শুক্রবার লাহোরে তার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ করেছেন পিটিআই কর্মীরা।

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

হাইপারসোনিক মিসাইল একটি রুশ জঙ্গী বিমানে তোলা হচ্ছে।

ঢাকা: রাশিয়া বলছে, শব্দের চেয়েও দ্রুত গতিসম্পন্ন হাইপারসোনিক মিসাইল ব্যবহার করে তারা পশ্চিম ইউক্রেনের একটি ক্ষেপণাস্ত্রের ডিপো ধ্বংস করেছে।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেংকভ বলছেন, ইভানো-ফ্র্যাংকিভিস্ক অঞ্চলে মাটির নিচে তৈরি ইউক্রেন বাহিনীর এই অস্ত্রভাণ্ডারে মিসাইল এবং বিমান থেকে উৎক্ষপণযোগ্য গোলাবারুদ রাখা ছিল।

রুশ মিসাইল আঘাতে ডিপোটি সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে যায়। তবে এই দাবির সত্যতা কোন নিরপেক্ষ সূত্র থেকে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

ইউক্রেন লড়াইয়ে রাশিয়া সম্ভবত এই প্রথম হাইপারসোনিক মিসাইল ব্যবহার করলো বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বায়ুমণ্ডলের উচ্চতম স্তর দিয়ে এই মিসাইল শব্দের চেয়েও পাঁচগুণ দ্রুত গতিতে চলে।

রুশ জঙ্গী বিমানে কিনঝাল মিসাইল।
রুশ জঙ্গী বিমানে কিনঝাল মিসাইল।

রাশিয়ার সামরিক বাহিনী জানাচ্ছে, ইউক্রেনের ওপর হামলায় তারা ‘কিনঝাল’ মিসাইল ব্যবহার করেছে।

এটি দু’হাজার কিলোমিটারেরও বেশি দূরত্ব অতিক্রম করতে পারে এবং কোন বিমান বা মিসাইল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দিয়ে একে ঠেকানো যায় না।

গত বছর রাশিয়া জানিয়েছিল, সে দেশের উত্তর পশ্চিমের হোয়াইট সি সাগরের একটি ফ্রিগেট থেকে হাইপারসোনিক মিসাইলের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে।

রাশিয়া, চীন ও যুক্তরাষ্ট্র বাদে অন্তত আরও পাঁচটি দেশ হাইপারসোনিক মিসাইল তৈরির চেষ্টা করছে। বিবিসি বাংলা

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail

ঢাকা: পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের স্পিকার যদি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবে ভোট বিলম্বিত করেন, তাহলে ইসলামিক দেশগুলোর সংগঠন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশনের (ওআইসি) সম্মেলন আটকে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরীফ ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। এ খবর দিয়ে অনলাইন এক্সপ্রেস ট্রিবিউন বলছে- শনিবার যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন এই দুই নেতা। এতে বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি বলেন, আমরা চাই সোমবার জাতীয় পরিষদের অধিবেশন শুরু হতে হবে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে। যদি সোমবারের মধ্যে এই অধিবেশন ডাকা না হয় তাহলে আমরা জাতীয় পরিষদের ভিতরে অবস্থান ধর্মঘট করবো। তারপর দেখবো আপনারা কিভাবে ওআইসির কনফারেন্স আয়োজনে সক্ষম হন। শাহবাজ শরীফের ইসলামাবাদের বাসভবনে বৈঠকের পর এই মন্তব্য করেন বিলাওয়াল। তিনি এ সময় স্পিকার আসাদ কাইসারকে পিটিআইয়ের কর্মী না হতে আহ্বান জানান। তাকে প্রথমে দেশের কথা এবং ওআইসি সম্মেলনের কথা চিন্তা করার পরামর্শ দেন।

বিলাওয়াল বলেন, স্পিকার যদি তার অগণতান্ত্রিক আচরণ পরিবর্তন না করেন, তাহলে আমি পুরো বিরোধী দলকে এটাই বুঝাবো যে, আমরা চাই ওআইসি সম্মেলন মসৃণভাবে সম্পন্ন হোক। কিন্তু দৃশ্যত সেটা হোক, সরকার তা চায় না। সরকার চায় না বিরোধী দলগুলো শান্তিপূর্ণ অবস্থায় থাকুক। কারণ, তারা প্রথমে পার্লামেন্ট লজ এবং তারপরে রাজধানী ইসলামাবাদে সিন্ধু হাউজে হামলা করেছে। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দেখতে পেয়েছেন তার পরাজয় শুরু হয়ে গেছে। তাই তিনি অগণতান্ত্রিক পদক্ষেপ নেয়া শুরু করেছেন। ইমরান খান তার সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছেন এবং তার শাসনক্ষমতার ইতি ঘটেছে। এ জন্য আমি বিপুল সংখ্যক মানুষকে অভিনন্দন জানাতে চাই।
এ সময় শাহবাজ শরীফ বলেন, সিন্ধু হাউজের ওপর হামলা হলো প্রকৃত অর্থে পাকিস্তানের ওপর হামলা। এসবই হচ্ছে ইমরান নিয়াজির নির্দেশে। তিনি এমন একজন ব্যক্তি, যিনি কখনোই লড়াইয়ে জেতায় আস্থাশীল নন। তার নিজের ক্ষমতাকে টেকাতে সব সীমা অতিক্রম করতে প্রস্তুত তিনি। তিনি আরও বলেন, বিরোধীরা শুধু সাংবিধানিক পন্থা ব্যবহার করবে। এটা করেই তারা অনাস্থা প্রস্তাবকে সফল করতে চায়। এতে পিটিআইয়ের মিত্ররাও মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে সরকারের দিক থেকে। মানব জমিন

0 comment
0 FacebookTwitterPinterestEmail